Back to Course

Audit - Class 11

0% Complete
0/0 Steps
Lesson 1 of 39
In Progress

ইতিহাস

সভ্যতার আদিকালে হিসাব সংরক্ষণের পদ্ধতি ছিল খুব সহজ ও সরল। প্রাচীনকালে লেনদেনের পরিমান কম হওয়ায় হিসাবরক্ষকরা নিজেরাই হিসাব নিকাশের পরীক্ষা করতেন। কালক্রমে সমাজের অগ্রগতির সঙ্গে সঙ্গে লেনদেনের পরিমাণ বৃধি পাওয়ায় হিসাবনিকাশ এর পরিমাণ ও বৃদ্ধি পায়। ফলে আয় ও ব্যায়ের হিসাব পরীক্ষা করার প্রয়োজন দেখা যায়।

হিসাবের পরিমাণ বৃঋধি হওয়ার ফলে আর্থিক লেনদেনের গানিতিক ও নীতির দিক শুদ্ধভাবে ও সুস্থভাবে সংরক্ষিত হয়েছে কিনা এক, আয় ব্যায়ের হিসাব পযালোচনা করার জন্যই নিরীক্ষাশাস্ত্রের উৎপত্তি।

“Audit” – এই শব্দটির উৎপত্তি “Audire” ল্যাটিন শব্দ থেকে যার অর্থ শ্রবণ করা। প্রাচীনকালে হিসাবরক্ষকগন তাদের প্রনীত হিসাব একজন অভিজ্ঞ ও নিরপেক্ষ ব্যক্তির নিকট পাঠ করতেন, সেই ব্যক্তি পাঠ শুনে হিসাবের শুদ্ধতা ও সততা যাচাই করতেন সেই জন্য ঐ অভিজ্ঞ ও নিরপেক্ষ ব্যক্তিটি অডিটর বা হিসাব পরীক্ষক হিসাবে পরিচিত।

১৯১৩ খ্রীঃ ভারতে প্রথম কোম্পানী আইন (Companies Act, 1913) বলবৎ হয়। এই আইন অনুযায়ী সর্বপ্রথম কোম্পানীর অভিজ্ঞ ও নিরপেক্ষ ব্যক্তির দ্বারা হিসাব নিকাশ করানো বাধ্যতামূলক করা হয়। এক্ষেত্রে হিসাবরক্ষকদের গুণাবলী ও তাঁদের কর্তব্য। ও যোগ্যতা অর্জনের জন্য GDA (Government Diploma in Accountancy) পরীক্ষার ব্যবস্থা করা হয়। এই পরীক্ষা প্রদেশক সরকার পরিচালনা করতেন। তবে (১৯৩২ খ্রীঃ কেন্দ্রীয় সরকার Auditor Certificate Rules পাশ করেন নিরীক্ষার কার্য পরিচালনা R.A বলা হয় এবং তাঁরাই নিরীক্ষার কার্য পরিচালনা করতে পারেন। এরপর (১৯৪৯ খ্রীঃ Chartered Accountants Act, পাশ হওয়ার পর নিরীক্ষার কার্য পরিচালনা করার ব্যপারে একটি স্বশাসিত সংস্থা যথা Indian Institute of Chartered Accountants তৈরী হয়। যার সম্পূর্ণ তত্ত্বাবধান কেন্দ্রীয় সরকারের উপর ন্যস্ত থাকে, অর্থাৎ তিনি তখন একজন নিরীক্ষক নামে পরিচিত হন।

error: Content is protected !!